বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:২৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
গোবিন্দগঞ্জের নয়ারহাটে শীতবস্ত্রের বাজারে এক ব্যবসায়ীকে জবাই করে হত্যা ইউপি নির্বাচনঃ সাদুল্লাপুরে নৌকার ভরাডুবি, স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জয় ফুলছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যানের অর্থায়নে মসজিদে অনুদান গাইবান্ধায় সরিষা ফুলে ছেয়ে গেছে পুরো ফসলের মাঠ চাচার বিরুদ্ধে ৪ বছরের ভাতিজিকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগে মামলা, একমাসেও গ্রেপ্তার হয়নি আসামি! ফুলছড়িতে জাতীয় কৃষক ক্ষেতমজুর সমিতির সমাবেশ ও স্মারকলিপি প্রদান বিসমিল্লাহ ফুডে ভোক্তা-অধিকারের সাময়িক সিলগালা পলাশবাড়ীতে ইটভাটা শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার ফুলছড়িতে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক ম্যাপিং তুলসিঘাটে বাসের ধাক্কায় নানী-নাতির মৃত্যু

সাদুল্লাপুরের দাদন ব্যবসায়ীর অত্যাচারে নিরাপত্তাহীনতায় একটি সংখ্যালঘু পরিবার, প্রতিকার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন

নিজম্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৮ অক্টোবর, ২০২২

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার নলডাঙায় একটি সংখ্যালঘু পরিবার দাদন ব্যবসায়ীর অত্যাচারে হুমকিতে জীবন যাবন করছেন। যেকোনো মহূর্তে দাদন ব্যবসায়ীরা ফাকা স্ট্যাম ও চেকে সই নেওয়াসহ বড় ধরনের ক্ষতি করতে পারে বলে জানান সংখ্যালঘু পরিবারটি। দাদন ব্যবসায়ীর হাত থেকে রক্ষা পেতে গত ১৭ অক্টোবর সন্ধায় তার নিজ বাড়ীতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন সার ও কীটনাশক ব্যবসায়ী শ্রী হরিসূদন মুখার্জি।

 

সংবাদ সম্মেলন তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, ৫ মাস আগে স্থানীয় সাবেক চেয়ারম্যান ও কুখ্যাত সুদারু নুর আলম নান্টুর কাছ থেকে সাড়ে তিন লক্ষ টাকা সুদের উপর নিয়েছিল শ্রী হরিসূদন মূখার্জি।

ইতিমধ্যে আড়াই লক্ষ টাকা সুদ দিয়েছেন তিনি। তবে হঠাৎ করে সুদারু নুর আলম নান্টু ৫০ লক্ষ টাকা দাবী করে। এছাড়াও ৫০ লক্ষ টাকা না দিলে তাকে বাড়ী ভিটা ছাড়া করে ঘরবাড়ী দখল করে নেওয়ার হুমকি ধামকি দেয়।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেন, আমি তার বাড়ী থেকে কাগজপত্র চুরি করে এনেছি বলে মিথ্যা কথা প্রচার করে বেড়াচ্ছে ।

এদিকে তার ছেলে মাঝে মাঝে আমার বাড়ীতে এসে বাড়ীঘর লুট করে আমাকে গায়েব করারও হুমকি ধামকি দিচ্ছেন। তাই আমি এই কুখ্যাত সুদারুর হাত থেকে রেহাই পেতে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসনসহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করছি।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন তার স্ত্রী প্রতিমা মূখার্জি, প্রতিবেশী ইসরাফিল ইসলাম।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

All Rights Reserved © 2022 Gaibandha Report

কারিগরি সহায়তায় : শাহরিয়ার হোসাইন