বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:৩৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
গোবিন্দগঞ্জের নয়ারহাটে শীতবস্ত্রের বাজারে এক ব্যবসায়ীকে জবাই করে হত্যা ইউপি নির্বাচনঃ সাদুল্লাপুরে নৌকার ভরাডুবি, স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জয় ফুলছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যানের অর্থায়নে মসজিদে অনুদান গাইবান্ধায় সরিষা ফুলে ছেয়ে গেছে পুরো ফসলের মাঠ চাচার বিরুদ্ধে ৪ বছরের ভাতিজিকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগে মামলা, একমাসেও গ্রেপ্তার হয়নি আসামি! ফুলছড়িতে জাতীয় কৃষক ক্ষেতমজুর সমিতির সমাবেশ ও স্মারকলিপি প্রদান বিসমিল্লাহ ফুডে ভোক্তা-অধিকারের সাময়িক সিলগালা পলাশবাড়ীতে ইটভাটা শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার ফুলছড়িতে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক ম্যাপিং তুলসিঘাটে বাসের ধাক্কায় নানী-নাতির মৃত্যু

গাইবান্ধায় সার বরাদ্দ ও কমিশন বৃদ্ধির দাবিতে স্বারকলিপি 

নিজম্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৩ নভেম্বর, ২০২২
গাইবান্ধা জেলায় রাসায়নিক সারের চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্দ ও পরিবেশকদের কমিশন বৃদ্ধির দাবিতে স্মারকলিপি দিয়েছেন বাংলাদেশ ফার্টিলাইজার অ্যাসোসিয়েশন গাইবান্ধা ইউনিট। কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবর দেওয়া স্বারকলিপি বুধবার বিকেলে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক  অলিউর রহমানের হাতে তুলে দেন তারা।
সার পরিবেশক (ডিলার) স্বারকলিপিতে উল্লেখ করেন, চলতি বছরে জেলায়  ৯৯ হাজার ৮৬০ মেট্রিক টন ইউরিয়া সারের চাহিদার বিপরীতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ৫৮ হাজার ৮২২ মেট্রিক টন। চাহিদার ঘাটতি ৪১ হাজার ৩৮ মেট্রিকটন।  টিএসপি সারের ৩১ হাজার ৮৩১ মেট্রিক টন চাহিদা, বরাদ্দ হয়েছে ১৪ হাজার ৮৪৪ মেট্রিকটন। ঘাটতি রয়েছে ১৬ হাজার ৯৮৭ মেট্রিক টন।  ডিএপি ৫১ হাজার ৪৬৮ মেট্রিক টন সারের বিপরীতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ২৬ হাজার ৫১২ মেট্রিক টন সার। ঘাটতি রয়েছে ২৪ হাজার ৯৫৬ মেট্রিক টন। এমওপি ৫৭ হাজার ৪৯৫ মেট্রিক টন চাহিদার বিপরীতে বরাদ্দ হয়েছে ১৬ হাজার ৬৯৭ মেট্রিক টন। ঘাটতি রয়েছে ৪০ হাজার ৭৯৮ মেট্রিক টন।
ডিলারদের দাবি, জেলার ১১১জন সার পরিবেশক সুষ্ঠুভাবে সার সরবরাহ ও বিতারণ করা হয়েছে। তা সত্ত্বেও  জেলার বিভিন্ন আবাদি জমির পরিমাণ বৃদ্ধি পাওয়ায় অতিরিক্ত সারের চাহিদা কৃষক পর্যায়ে বেড়ে গেছে।  বর্তমানে পরিবহন খরচ, দোকান ভাড়া, কর্মচারির বেতনভাতা, বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি, জীবন যাত্রার ব্যয় বৃদ্ধিসহ সকল খাতে ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে। তার পরেও সার ডিলারগণ সরকারের ভাবমূর্তি রক্ষা করে আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পরেও কৃষকদের মাঝে সুষ্ঠ, সুন্দর ভাবে সার সরবরাহ করে আসছে।
সার ব্যবসায়ীদের দাবি, জেলায় ২০২২-২৩ অর্থবছরে যে পরিমাণ রাসায়নিক সার বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে, তা চাহিদার বিপরীতে অনেক কম বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ ফার্টিলাইজার অ্যাসোসিয়েশন ১৯৯৬ সাল থেকে প্রতি বস্তা সারের পরিবহন খরচসহ কমিশন পান ১০০ টাকা। প্রতি বস্তা সারের কমিশন বৃদ্ধি করে ২০০ টাকা করার দাবি জানান সার ব্যবসায়ীরা।
স্মারকলিপি প্রদানকালে সার ব্যবসায়ীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ফার্টিলাইজার অ্যাসোসিয়েশন গাইবান্ধা জেলা শাখার সভাপতি সুদেব কুমার চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম রিপন প্রমুখ।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

All Rights Reserved © 2022 Gaibandha Report

কারিগরি সহায়তায় : শাহরিয়ার হোসাইন